Wednesday, July 28, 2021

অ-হিন্দু ভারতীয়দের ওপর লাগাতার অত্যাচার চলছে, ব্যবস্থা নিতে আর্জি বাইডেন প্রশাসনের কাছে

অ -হিন্দু ভারতীয়দের ওপর লাগাতার অত্যাচার চলছে এই অভিযোগ জানিয়ে আমেরিকার ৩০ টির বেশি নামকরা মানবাধিকার সংগঠন ইন্ডিয়ান আমেরিকান মুসলিম কাউন্সিল এর সঙ্গে জোট বদ্ধ হয়ে বাইডেন প্রশাসনের কাছে ভারতের বিরুদ্ধে কঠোরতর অবস্থান গ্রহণ করতে অনুরোধ করেছে।সম্ভব হলে নিষেধাজ্ঞা জারি করতেও আবেদন জানিয়েছে। এই মর্মে তারা একটা প্রস্তাব গ্রহণ করেছে ইন্টারন্যাশনাল রিলিজিয়াস  ফ্রিডম সামিট নামে ওয়াশিংটনে    সম্প্রতি হয়ে যাওয়া একটি সম্মেলনে ।

- Advertisement -

সেই সম্মেলনে অভিযোগ জানানো হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি খুব কৌশলে বিভিন্ন অ- হিন্দু সম্প্রদায়ের  ধর্মীয় স্বাধীনতা কেড়ে নিচ্ছে এবং   ধর্মীয় সংখ্যালঘু সমাজের মানুষদের ওপর নানাভাবে শাস্তির খাড়া নামিয়ে আনছে । এই কারণে  ভারতের ওপর চাপ সৃষ্টি করবার জন্য মার্কিন প্রশাসনের কাছে তারা আবেদন জানিয়েছে ।

একজন মার্কিন সিনেটর আর দুজন মার্কিন কংগ্রেসের সদস্য ইতিমধ্যেই ভারতে ধর্মীয় সহিষ্ণুতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে একটি রিপোর্ট বাইডেন প্রশাসনের কাছে জমা দিয়েছে। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে নাগরিকত্ব আইনের সংশোধনী এনে বিভিন্ন রাজ্য সরকার সংখ্যালঘু সমাজের কাছ থেকে সরকারি সুযোগ-সুবিধা কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। ধর্মান্তরকরণ বিরোধী আইন এনে ব্যক্তিগত ধর্ম আচরনে স্বাধীনতা কেড়ে নিচ্ছে। এমনকি মিথ্যা অভিযোগে শারীরিকভাবে নির্যাতন চলছে। নানা  রকম পন্থায় সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করা হচ্ছে মানুষের মধ্যে  ধর্মীয় হিংসা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য।  

  বাইডেন প্রশাসনের কাছে এই সমস্ত ধর্মীয় সংগঠন এক হয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছে ।এই মুহূর্তে ভারতে যে বিজেপি হিন্দু আরএসএস সংস্কৃতি চলছে সেই দর্শনে ভারতের গণতন্ত্র এবং ধর্মীয় নিরপেক্ষতা বিপন্ন। এই মর্মে তারা অভিযোগ জানিয়েছে ।

উল্লেখ্য ,ইতিমধ্যে মার্কিন স্বরাষ্ট্র সচিব অ্যান্থনি   বিন ক্লেন  দুই হাজার কুড়ি সালের একটি মার্কিন প্রশাসনের রিপোর্ট প্রকাশ করেছে । সেই রিপোর্টে অভিযোগ জানানো হয়েছে যে ভারতে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর নানাভাবে  যে হিংসা ঘটছে তাকে নিয়ন্ত্রণ করবার জন্য ভারত সরকার তেমন কিছুই করেনি । যেসমস্ত সংগঠনগুলি ভারত সরকারের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে সমালো চনা করেছে তারা অবশ্য  মার্কিনপ্রশাসনের ক্ষেত্রেও  খুব সমালোচক। একইভাবে সে দেশে ঘটে চলা ধর্মীয় সংখ্যালঘু এবং বর্ণবিদ্বেষী হিংসা নিয়ন্ত্রণে মার্কিন প্রশাসনের ব্যর্থতা নিয়ে তারা সমালোচনা করেছে।

- Advertisement -
- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

Popular Articles

error: Content is protected !!