Wednesday, July 28, 2021

অনলাইনে বারবার সংযোগ ছিন্ন হচ্ছে, বিচারের নামে সার্কাস হচ্ছে, বললেন কলকাতা হাইকোর্টের ক্ষুব্ধ বিচারপতি,

এটা দুর্ভাগ্য যে আদালত বিচারের স্বার্থে কমপক্ষে ভার্চুয়াল সার্ভিসটাও যথাযথ করতে পারেনি।’: বিচারপতি

- Advertisement -

অনলাইনে বিচারের নামে সার্কাস হচ্ছে, বিচার চলাকালীন ক্ষোভে ফেটে পড়ে এমন কথাই বললেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্য। তিনি জানিয়েছেন, ‘ভার্চুয়াল সার্ভিসে বিচার করা অসম্ভব। বড় বিঘ্ন ঘটছে বার বার। আইনজীবীদের সঙ্গে ভার্চুয়াল শুনানিতে তাঁকে একেবারে মূক হয়ে বসে থাকতে হচ্ছে। এই ধরনের শুনানির নামে কার্যত রসিকতা হচ্ছে। কোনও বিষয়ের রায় দেওয়ার সামর্থ্য এই ব্যবস্থার মাধ্যমে করা সম্ভব নয়। এটা জনতার সামনে একটা সার্কাস হচ্ছে।’

শুক্রবার একটা মামলায় রায় দিতে গিয়ে বিচারপতি বলেনএটা দুর্ভাগ্য যে আদালত বিচারের স্বার্থে কমপক্ষে ভার্চুয়াল সার্ভিসটাও যথাযথ করতে পারেনি। তিনি বলেন, ‘‘যতক্ষণ না পর্যন্ত আদালত বসতে না পারছে,যতক্ষণ না এই কানেকটিভিটির সমস্যা পুরোপুরি না মিটছে, আমি নির্দিষ্টভাবে বলে দিচ্ছি এই সার্কাসের অংশ হতে আমি চাই না। ক্ষুব্ধ বিচারপতি তারপর নিজেকে নিয়েই বলতে থাকতে থাকেন, আমি মামলাকারীদের ন্যায্য বিচার দেওয়ার জন্য শপথ নিয়েছি।আমি তাঁদের বিচার দিতে দায়বদ্ধ। ’

আদালত জানিয়েছে, ভার্চুয়াল মাধ্যমে শুনানির সময় অডিও, ভিজুয়াল মাধ্যমে বার বার বিঘ্ন ঘটছে।এটা ঘটনা যে বহুকাল ধরেই রাজ্যের কাছে হাইকোর্টের আইনজীবিরা আবেদন জানিয়েছেন নেট ব্যবস্থার উন্নতি করতে। এর জন্য প্রয়োজনীয় ১০ লক্ষ টাকার মতোএকটা আনুমানিক খরচের কোথাও সেই সময়ে উঠেছিল। কিন্তু টাকার অভাব দেখিয়ে রাজ্য সরকারের কাছ থেকে এ ব্যাপারে কোনো সহযোগিতা পাওয়া যায়নি। এদিন বিচারপতি জানিয়েছেন,’এটা দুর্ভাগ্য যে আদালত বিচারের স্বার্থে কমপক্ষে ভার্চুয়াল সার্ভিসটাও যথাযথ করতে পারেনি।’ বিচারপতি জানিয়েছেন এভাবে প্রতিক্রিয়া জানানোর জন্য তাঁর ব্যক্তিগতভাবেও খারাপ লাগছে। উল্লেখ্য,এই নিয়ে সেন্ট্রাল প্রজেক্ট কো অর্ডিনেটরকে বার বার বলা হয়েছে।অন্য একটি ব্যাপারে শোকজও হয়েছে। কিন্তু তারপরেও পরিস্থিতির কোনো উন্নতি হয় নি। যে কে সেই।

- Advertisement -
- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -

Popular Articles

error: Content is protected !!